Passion XTec-এর সামনে কুপোকাত Honda, একবার তেল ভরে যান ৬৮ কিলোমিটার

হিরোর এই একটি বাইক হোন্ডার মার্কেট খারাপ করার জন্য যথেষ্ট বলে অনেকে মনে করছেন। হিরোর নতুন বাইক Passion XTec ইতিমধ্যে বাইক প্রেমীদের নজর কেড়েছে। অনুমান…

Published By: Pritam Santra | Published On:
Advertisements

হিরোর এই একটি বাইক হোন্ডার মার্কেট খারাপ করার জন্য যথেষ্ট বলে অনেকে মনে করছেন। হিরোর নতুন বাইক Passion XTec ইতিমধ্যে বাইক প্রেমীদের নজর কেড়েছে। অনুমান করা হচ্ছে যে হিরোর এই বাইক Honda Shine এর বাজার অনেকটা খারাপ করতে চলেছে।

Advertisements

Passion XTec এ রয়েছে অনবদ্য কিছু ফিচার। সেই সঙ্গে মাইলেজও বেশ ভালো। দেশের সর্ববৃহৎ দুই চাকার গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হিরো মটোকর্প তাদের নতুন প্যাশন এক্সটেক বাইক বাজারে এনেছে। এই মোটরসাইকেলটি ড্রাম এবং ডিস্ক ব্রেক দুটি ভ্যারিয়েন্টে লঞ্চ করা হয়েছে। এই প্রাইস রেঞ্জের মধ্যে দুর্দান্ত বৈশিষ্ট্যযুক্ত এই বাইকটি আপনার জন্য উপযুক্ত প্রমাণিত হতে পারে। ভালো মাইলেন বাইকটির অন্যতম ইউএসপি।

Advertisements

হিরো প্যাশনের ইঞ্জিন পরিবর্তন করা হয়েছে। নতুন প্যাশন প্রো এক্সটেক ১১০ সিসি বিএস-৬ কমপ্লায়েন্ট ইঞ্জিনের সাথে আসে যা ৭৫০০ আরপিএম-এ ৯ বিএইচপি পাওয়ার আউটপুট এবং ৫০ আরপিএম-এ ৯.৭৯ এনএম টর্ক উৎপন্ন করতে সক্ষম। ইঞ্জিন পরিবর্তনের কারণে এই বাইকের মাইলেজও পরিবর্তন করা হয়েছে। বাইকটির মাইলেজ প্রায় ৬৮ কিমি/লিটার বলে কোম্পানির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে। বাইকটি সম্পূর্ণ আপডেট করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে প্রজেক্টর এলইডি হেডল্যাম্প, ব্লুটুথ কানেক্টিভিটি, এসএমএস ও কল অ্যালার্ট, রিয়েল-টাইম মাইলেজ ইন্ডিকেটর, লো-ফুয়েল ইন্ডিকেটর সহ ফুল ডিজিটাল ইনস্ট্রুমেন্ট ক্লাস্টার।

Hero passion xtec

ফিচার ও ইঞ্জিনে পরিবর্তনের কারণে এই বাইকের দামও পরিবর্তন করা হয়েছে। হিরো প্যাশন এক্সটেকের ড্রাম ভ্যারিয়েন্টের জন্য ৭৪ হাজার ৫৯০ টাকা নির্ধারণ করেছে কোম্পানি। অন্যদিকে হিরো প্যাশন এক্সটেকের ডিস্ক ভ্যারিয়েন্ট পাওয়া যাচ্ছে ৭৮,৯৯০ টাকার বিনিময়ে। এই দুটি দামই দিল্লির এক্স-শোরুমের ভিত্তিতে জানানো হল। প্যাশন এক্সটেকের সঙ্গে দেওয়া হচ্ছে একটি৫ বছরের ওয়ারেন্টি।

Advertisements